WELCOME to BENGALI BLOG of
SRI SRI MOHANANANDA BRAHMACHARI

Saturday, June 13, 2015

"তুমি আমার আংটি টা আমায় দিলে না?" ***শ্রী শ্রী মোহনানন্দ অমৃত লীলা =৩***

***শ্রী শ্রী মোহনানন্দ অমৃত লীলা =৩***
"তুমি আমার আংটি টা আমায় দিলে না?"

শ্রী মহারাজের জন্মতিথিতে আমার জন্ম। কিন্তু আশৈশব শ্রীকৃষ্ণ- আমার ধ্যান,জ্ঞান।শিশু মনের সবটাই শ্রীকৃষ্ণ অধিকার করেছিলেন।  মেলা থেকে কেনা শ্রীকৃষ্ণের  পট ,তাকে ঘিরেই শিশু মনের ভাবনা,কল্পনা।পটের ছবিতে তাঁকে যেন জীবন্ত মনে হতো !মনে হত,সে যেন নড়ে ,চড়ে ,কথা বলে !শ্রীকৃষ্ণের মূর্তির দিকে চেয়ে থাকতে থাকতে,শিশুমন কোন সে অজানা লোকে পাড়ি দিত।
শ্রীমহারাজ বাড়ীতে আসতেন,ছোট থেকেই তাঁকে দেখছি।ভীষণ আনন্দ হত তাঁকে দেখে। তিনি ১০ মিনিটের visit এ এলেও সারা বাড়ীতে যেন আনন্দের হাট বসে যেত।তাঁর দর্শন ও আদরের স্পর্শে শিশু মন আনন্দে মুগ্ধ বিভোর হয়ে থাকত।
 একদিন রাতে স্বপ্ন দেখছি,......কোথায়  এক ফুলের বনের মধ্যে মহারাজ বসে আছেন। আমি কাছে যেতেই হাসি হাসি মুখে কাছে ডেকে  নিলেন। তারপর নিজের হাতের আঙ্গুল নেড়ে বললেন ----"তুমি আমার আংটি টা আমায় দিলে না?" একবার নয় ,৩ বার বললেন। মিষ্টি মিষ্টি দুষ্টু হাসি হাসছেন,আর বলছেন।

সকালে ঘুম ভাঙ্গতে দিদিমাকে বললাম।মামাবাড়ীতে দিদিমার কাছে বড় হয়েছি।দিদিমাকেই মা ডাকতাম।মা বলল,---"মহারাজ নররূপী ভগবান।তাই তিনি স্বপ্নে এসে দেখা দেন,কথা বলেন।পরে আরো কতো সুন্দর সুন্দর স্বপ্ন তুই দেখবি।"

উত্তরটায় ঠিক মন ভরলো না।মহারাজ ভগবান ঠিক -ই ,কিন্তু সে ভগবান আমার কাছে বার বার আংটি চাইবে কেন?শ্রীকৃষ্ণের পটের কাছে গেলাম,---দেখলাম,বংশীধারী শ্রীকৃষ্ণের হাতে সুন্দর একটা শংখ দেওয়া আংটি।মনে হলো,হাতের আংটি নেড়ে কি যেন ইশারা করলেন। 

এরপর আমার জন্মদিনের ৩/৪দিন আগে,আমার সদ্য বিবাহিতা ছোটোমাসী  এলো,আমার জন্মদিনের উপহার একটা সোনার আংটি ও ফ্রিল দেওয়া ফ্রক নিয়ে।সেই আংটি টা  দেখলাম,অবিকল শ্রীকৃষ্ণের হাতের শংখ দেওয়া আংটি!! আকারেও বেশ বড়। মাসী বলল,--"আংটি টা বড় হলে পরিস।"
মাসী চলে যেতে মা কে বললাম,---"মা,এই আংটি টা মহারাজ কে দেবো। "
মা বলল,--"বেশ,তোর মন যখন চায়,দিস। "

এর ২/৩ দিন পর মহারাজ কারো একটা বাড়ীতে এসেছেন।লাইন দিয়ে প্রনাম চলছে।আমিও ছোটো মেয়ে সেই আংটি হাতে লাইন -এ দাঁড়িয়ে আছি।দূর থেকেই দেখছি,আমাকে দেখছেন আর খুব হাসছেন।মহারাজের কাছাকাছি যেতেই খুব মিষ্টি করে হাসতে হাসতে বললেন,--"তুমি এসেছো ,এনেছ আমার আংটি ?" আমি হাতে দিতেই খালি কৌটো টা আমার হাতে ফেরত দিয়ে আংটি টা নিজের হাতে পড়ে নিলেন। তারপর সেই আংটি পরা হাত টা খুব সুন্দর ভঙ্গীতে নাড়লেন।মহারাজের হাতটা দেখে আমার সেই শংখ দেওয়া আংটি পড়া বংশীধারী শ্রীকৃষ্ণের কথা মনে পড়ে গেল!অবিকল একরকম!!

তারপর কত না আদর আর আশীর্বাদ  সেই শংখ দেওয়া আংটি পড়া হাত দিয়ে সেই ছোট মেয়েটার মাথায় সারা জীবন ঝরে পড়ল।কত অপূর্ব,মনোহরণ তাঁর লীলা দর্শন করে,অনুভব করে,এ জীবন ধন্য হলো। 
এই বিশ্বরূপের খেলাঘরে কতই গেলাম খেলে।
সেই অপরূপ কে দেখে গেলাম,দুটি নয়ন মেলে---
যা দেখেছি,যা পেয়েছি,তুলনা তার নাই।                               



Google+ Followers

Followers

Total Pageviews

Translate